Breaking News
Home / প্রথম পাতা / বাগমারায় পরকীয়া প্রেমের টানে নারী উধাও

বাগমারায় পরকীয়া প্রেমের টানে নারী উধাও

স্বামীকে বেধেঁ মারপিট ও ফাঁকা স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর নেয়ার অভিযোগ
বাগমারা (রাজশাহী সংবাদদাতা: রাজশাহীর বাগমারায় পরকীয়া প্রেমের টানে সুইটি খাতুন (২৯) নামে এক নারী বিদেশ ফেরত এক যুবকের সাথে উধাও হয়েছে। এই ঘটনার পর সুইটি খাতুন স্বামীকে ৩ মাস আগের বিচ্ছেদ বা তালাক নোটিশ প্রেরণ করেছে। এদিকে সুইটি খাতুনের পিতা মুনতাজ আলী, ভাই সাগর আলীসহ কতিপয় দুস্কৃতিকারী স্বামী শাহিনুর রহমানকে জোরপুর্বক মুখ বেধেঁ মারপিট করে ২ শত টাকার স্ট্যাম্পের উপর স্বাক্ষর নিয়ে ভয়ভীতি ও প্রাণ নাশের হুমকি প্রদান করছে। এ ঘটনায় শাহিনুর রহমান থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।
জানা গেছে, উপজেলার ভবানীগঞ্জ পৌর সভার কর্ণিপাড়া মহল্লার শাহিনুর রহমান উপজেলার গোয়ালকান্দি ইউনিয়নের কনোপাড়া গ্রামের মুনতাজ আলীর কন্যা সুইটি খাতুনের সাথে ২০১৮ সালে বিয়ে হয়। উভয়ের মধ্যে দীর্ঘ দিন ঘর সংসার চলে। বিয়ের ৩ বছর পর সুইটি খাতুন প্রেমের ফাঁদে পা দিয়ে কৌশলে বাড়ি থেকে নগদ টাকা পয়সা ও সোনার গহনা নিয়ে উপজেলার পাশ্ববর্তি নওগাঁর মান্দা উপজেলার ফয়তাপুর গ্রামের বিদেশ ফেরত আব্দুল মমিনের (২৯) সাথে পালিয়ে যায়। পালিয়ে যাবার পর তাকে অনেক খোঁজাখুঁজি করে পাওয়া যায়নি। বিষয়টির কয়েক দিন পর সুইটি খাতুন ৩ মাস আগের বিবাহ বিচ্ছেদের তালাক নামা নোটিশ স্বামী শাহিনুরকে প্রেরণ করে। এই ঘটনার পর গত ১৪ ফেব্রুয়ারী শাহিনুর তাহেরপুর হতে বাসা ফিরার পথে সন্ধ্যায় রামরামা সড়কের উপর তাকে একা পেয়ে নিখোঁজ সুইটি খাতুনের পিতা মুনতাজ আলী, ভাই সাগর আলীসহ ৪/৫ জন দুস্কৃতিকারী জোরপুর্বক মুখ বেধেঁ মারপিট করে উদ্দেশ্য প্রণোদিত ভাবে ২ শত টাকার স্ট্যাম্পের উপর স্বাক্ষর নেয় এবং তাকে ভয়ভীতি দেখাতে থাকে। এ সময় হঠাৎ করে স্থানীয় জানিপুর মহল্লার সাহাদত আলীর ছেলে ফরিদ হোসেন ও দরগামাড়িয়া মহল্লার গোলাম হোসেনের ছেলে লিটন মিঞা এগিয়ে আসলে দুস্কৃতিকারীরা চলে যায়। এই ঘটনার পর থেকে তিনি নিরাপত্তায় ভোগছেন। এছাড়া উদ্দেশ্য প্রণোদিত ভাবে ফাঁকা ২ শত টাকার স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর নিয়ে প্রতিপক্ষ তাকে ফাঁসাতে পারে এমন আশংকায় ভোগছেন শাহিনুর রহমান ও তার পরিবার। এ ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত পুর্বক বিষয়টি আমলে নিয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন ভুক্তভোগী পরিবার।
এ ব্যাপারে বাগমারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোস্তাক আহম্মেদ এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, জোরপুর্বক স্বাক্ষর নেয়ার একটি লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে এবং বিষয়টি তদন্ত পুর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান তিনি।

About admin

Check Also

রামগড়ে পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের  উদ্বুদ্ধকরণ  কর্মশালা

রামগড়ে পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের  উদ্বুদ্ধকরণ  কর্মশালা রামগড় প্রতিনিধি: খাগড়াছড়ির রামগড়ে পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের  আইইএম ইউনিটের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *