Breaking News
Home / উপ-সম্পাদকীয় / টঙ্গীবাড়ীতে গো খাদ্য সংকট # খামারীরা দিশেহারা

টঙ্গীবাড়ীতে গো খাদ্য সংকট # খামারীরা দিশেহারা

সামসুদ্দিন তুহিন,টঙ্গীবাড়ী (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি:বন্যায় আউস, বোনা আমন ও রোপা ধান পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় কৃষকেরা ধানের সঙ্গে গো-খাদ্য হিসেবে খড়ও হারিয়েছেন। ফলে গো-খাদ্য পাওয়ার সুযোগ তেমন নেই। এমতাবস্থায় মুন্সীগঞ্জের টঙ্গীবাড়ী উপজেলার গরু খামারীরা কচুরিপানা ও কলমি লতাপাতা খাইয়ে গরু-বাছুর বাঁচানোর চেষ্টা করছে।
উপজেলার মান্দ্রা গ্রামের সবুজ শেখের বাড়ীতে সরজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, গরুর সামনে কচুরিপানা ও করমির লতাপাতা খাওয়ানো চেষ্টা করছেন কৃষক সবুজ শেখ। গরুর জন্য বন্যার পানির সঙ্গে ভেসে আসা কচুরিপানা ও কলমি সংগ্রহ করছেন তিনি। সবুজ শেখ জানান, একেবারেই খের (খড়) নাই। ১০টা গরু লালন পালন করি। এ দিয়েই সংসার চালাতে হয়। বন্যার কারনে সব ফসলি জমি তলিয়ে গেছে তাই ঘাস, খড় কুটা খাওয়াতে পারি না। শুধু খালি ফেনা (কচুরিপানা) ও করমির লতাপাতা আর পানি খাওয়াই।
উপজেলার দিঘিরপাড় ইউনিয়নের সরিষা বন এলাকার আ: গনি মিয়া জানান, কুরবানি ঈদে দুইটা গরু ১ লাখ ৬০ হাজার টাকায় বিক্রি করেছি। সেই গরু বিক্রির টাকা থেকে আবার দুইটা বাছুর কিনেছি। কিন্তু বন্যার কারণে কাঁচা ঘাসের সংকট পড়েছে। এখন কলমি লতাপাতা খাওয়াই কিন্তু বাছুরগুলো খেতে চায় না।

উপজেলা প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের তথ্য মতে, টঙ্গীবাড়ী উপজেলার ১৩ ইউনিয়নে ৩৫ হাজার ৩২৫টি গরু, ৫ হাজার ৫টি ছাগল ও ২৩০টি ভেড়া পানিবন্দি রয়েছে। এছাড়া ৫২ হাজার ১০২ একর গোচারণ ভূমি ও কাঁচা ঘাসের জমি তলিয়ে গেছে। বন্যায় এ উপজেলায় গবাদি পশু খামারের অবকাঠামোজনিত ক্ষতি হয়েছে প্রায় সাড়ে ৮১ লাখ টাকা। পাশাপাশি দানাদার খাদ্য ১ হাজার ২০৪ মেট্রিক টন, খড় ৯২৬ মেট্রিক টন ও কাঁচা খাস ১৪ হাজার ১২২ মেট্রিক টন ক্ষতি হয়েছে।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. মো: মোদাচ্ছের হোসেন জানান, দীর্ঘমেয়াদি বন্যায় গবাদিপশুর ক্ষতি হবে এটা স্বাভাবিক। তবে জেলা প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর থেকে ৩ হাজার ৮২৫টি গবাদিপশু ও ২৯ হাজার ৭০০টি হাঁস-মুরগিকে টিকা প্রদান করা হয়েছে। এছাড়া চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে ১ হাজার ৩৩৫টি গবাদি পশু ও ১২ হাজার ৪০০টি হাঁস-মুরগিকে। একই সঙ্গে এখন পর্যন্ত ৫ দশমিক ৭৫ টন পশুখাদ্য বিতরণ করা হয়েছে। উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়ন পর্যায়ে এলএসপিদের মাধ্যমে প্রকৃত খামারীদের তালিকা তৈরি করা হচ্ছে গো খাদ্যের জন্য তাদের আর্থিক সহযোগীতার করা হবে।#

About admin

Check Also

মোনালিসার মোহমায়া 

সৈয়দ মুন্তাছির রিমন: তোমি  ? তুমি কি সেই ছবি ? যা  শুধু পটে আকাঁ এক …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *