Breaking News
Home / উপ-সম্পাদকীয় / গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে প্রতিবেশীর নির্যাতন থেকে মুক্তির লক্ষ্যে প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা

গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে প্রতিবেশীর নির্যাতন থেকে মুক্তির লক্ষ্যে প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা

আশরাফুজ্জামান সরকার, গাইবান্ধাঃ- গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে প্রতিবেশীর অত্যাচার-নির্যাতন থেকে মুক্তির লক্ষ্যে প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করেছে অসহায় একটি পরিবার। গত ১’লা মে শুক্রবার বিকেলে আঃ রহিম মিয়া ও তার ছেলে মিজানুর রহমান পৌর শহরের হরিণমারি গ্রামের নিজ বাড়ীতে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিক ডেকে তার পরিবারের উপর আমিনুল ইসলাম দুদু ও তার ছেলে পলাশের অত্যাচার-নির্যাতনের বিষয় জানায় এবং থানায় অভিযোগ দাখিলের ফটোকপি দিয়ে নির্যাতনের সুষ্ঠু বিচারের দাবি করেন। থানায় অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, বিবাদী আমিনুল ইসলাম দুদু ও তার ছেলে পলাশের সাথে বেশ কিছু দিন যাবত বাদী আঃ রহিম মিয়ার ছেলে মিজানুর রহমানের মনোমালিন্য ও বিরোধ চলে আসছে। এরই ধারাবাহিকতায় পলাশ মিয়া আঃ রহিম কে তার বসত বাড়ির সমনে একা পেয়ে খুন জখমের হুমকি দিলে রহিম মিয়া তাকে চলে যেতে বল্লে সে রাগান্বিত হইয়া কিল, ঘুষি, চর, থাপ্পড় মেরে ধাক্কা দিয়ে মাটিতে ফেলে দিয়ে তার পকেটে থাকা ২’হাজার টাকা ছিনিয়ে নিলে আব্দুর রহিমের ডাক চিৎকারে সাক্ষী মিজানুর, মিন্টু, সাইফুলের উপস্থিতি বুঝতে পেরে বিবাদি পলাশ দ্রুত সটকে পরে। এমতাবস্থায় হরিণমারি অবস্থানকালে বিভিন্ন সামাজিক সমস্যা তৈরী হচ্ছে।বিবাদী গংরা লোকমুখে প্রকাশ করছে যে,আমি সহ আমার পরিবারের যে কাউকে সুযোগ মত একা পাইলে খুন-জখমসহ জানমালের বড় ধরণের ক্ষতিসাধন করিবে। সেকারনে তিনি জেলা উপজেলার ইলেকট্রনিকও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকদের মাধ্যমে নিরাপত্তার দাবি করেন ৷ এমনকি বিবাদীরা যাতে আমার ও আমার পরিবারের কোনো প্রকার ক্ষতি সাধন করতে না পারে এবং আমাদের জীবনের নিরাপত্তাসহ আমি আমার পরিবারবর্গ নিয়ে শান্তিপূর্ণভাবে বসবাস নিশ্চিত করতে পারি এ ব্যাপারে সবার সহযোগীতা ও প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করছি।

About admin

Check Also

মোনালিসার মোহমায়া 

সৈয়দ মুন্তাছির রিমন: তোমি  ? তুমি কি সেই ছবি ? যা  শুধু পটে আকাঁ এক …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *