Breaking News
Home / গ্রাম-গঞ্জ / মামাকে  পিটিয়ে মেরে ফেললো বোন ও ২ ভাগিনা 

মামাকে  পিটিয়ে মেরে ফেললো বোন ও ২ ভাগিনা 

তাজুল ইসলাম রাকীব  লৌহজং (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি ঃউপজেলার লৌহজংয়ের দক্ষিণ মেদিনী মন্ডল গ্রামের ইব্রাহীম (৩৩) কে নির্মমভাবে বিদেশী লোহার লাইট দিয়ে পিটিয়ে মেরে ফেলার অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি আজ ৩০ শে আগষ্ট  শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে।
এই ঘটনায় লৌহজং থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। ইব্রাহীম দক্ষিণ মেদিনী মন্ডল গ্রামের মৃত মোঃ রতন হাওলাদারের ছেলে। পারিবারিক ও বাবার রেখে যাওয়া সম্পদ সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে এমন নির্মম ঘটনা ঘটানো হয়েছে বলে এলাকায় অভিযোগ উঠছে।
ইব্রাহীমের স্ত্রী শিরিন আক্তার অভিযোগ করে বলেন ভাগিনা শামীম (২২) ও সেলিম (২৫) মা সুলতানা আক্তারের নির্দেশে আমার স্বামী ইব্রাহীমকে নির্মমভাবে হত্যা করেছে। ইব্রাহীমের স্ত্রীকে বোন সুলতানা আক্তার ঝি এর মতো তার বাড়ি ঘরের কাজ কর্ম করান দীর্ঘ দিন ধরে। বিভিন্নভাবে ইব্রাহীম ও তার স্ত্রীকে নির্যাতন করে আসছিল। ইব্রাহীমের স্ত্রী যাতে বাড়িতে না থাকে সেই জন্য নির্যাতন করতে থাকে। আজ  শুক্রবার বিকালে সুলতানা ও তার দুই ছেলে ডেকে নেয় ইব্রাহীমের স্ত্রীকে এসময় স্ত্রী বাবার বাড়ি যেতে চাইলে বাধাদেন বোন সুলতানা।
তার বাবার বাড়ী যেতে  নিষেধ করেন,  বলেএ বিষয় নিয়ে স্ত্রীর সাথে তর্ক বিতর্কের সময় এক পর্যায়ে ইব্রাহীম বাড়িতে চলে আসেন। এমন সময় দুই ভাগিনা  মা সুলতানা আক্তারের আদেশ পাওয়া মাত্র এলোপাথারি বিদেশী লোহার টর্চ লাইট দিয়ে মারতে থাকে। এক পর্যায়ে লাইট দিয়ে স্বজোরে ঘারের উপর উপর্যপুরি আঘাত করলে ঘটনাস্থলেই মাটিতে লুটিয়ে পড়ে ইব্রাহীম। পরে স্থানীয়দের সহায়তায় ইব্রাহীমকে ষোলঘর উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত্যু ঘোষণা করে।
সরোজমিনের তথ্যমতে ও স্থানীয়দের সাথে আলাপ হলে জানাগেছে
গেল ২০১৭ শালে ইব্রাহীমের আপন বড় ভাই মোঃ হাসু হাওলাদার কে এভাবে দুনিয়া থেকে চলে যেতে হয়েছে। যদিও সেই ঘটনাটি আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দেয়া হয়েছিল। আজ পর্যন্ত সেই ভাই মোঃ হাসুর সন্তান ও স্ত্রীকে
এ বাড়ি তে থেকে বিতারিত রেখেছেন বোন সুলতানা। সে সময়ের  ঘটনাটি ছিল রহস্যজনক। পদ্মা সেতুর জন্য অধিগ্রহণ করা জমি ও বাড়িতে রেখে যাওয়া বাবার সম্পদ ও  ক্যাশ টাকা ভাগা ভাগিকে কেন্দ্র করে দীর্ঘদিন ধরে আপন বোন সুলতানা আক্তার ও তার দুই ছেলের সাথে ইব্রাহীমের বিরোধ চলে আসছিল এ পরিবারে ।
এ বিষয়ে লৌহজং থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আলমগীর হোসাইন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন  লাশ মুন্সিগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করা হবে ময়না তদন্তের রির্পোট পাওয়ার পর আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

About admin

Check Also

মঠবাড়িয়া পৌর শহরের ১৬০০ মিটার সড়কের সংস্কার কাজ শীঘ্রই শুরু

মাহামুদুল হাসান (হিমু) মঠবাড়িয়া উপজেলা প্রতিনিধিঃ পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলার প্রধান বেহাল সড়কটি অবশেষে সংস্কার হচ্ছে। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *