Breaking News
Home / গ্রাম-গঞ্জ / টাঙ্গাইলে ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে ক্লাস

টাঙ্গাইলে ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে ক্লাস

টাঙ্গাইল সংবাদদাতা : ঝুঁকিপূর্ণ ভবনের নিচে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ক্লাস করছে টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলার সহবতপুর ইউনিয়নের ঘুনী গজমতি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। জানা যায়, গত মার্চে তৃতীয় শ্রেণীর ক্লাস চলার সময় বিমের একাংশ ধসে পড়ে জিহাদ, বৃষ্টি ও ইমরান নামে তিন শিক্ষার্থী মারাত্মকভাবে আহত হয়। এ ঘটনার পর থেকে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীর উপস্থিতি কমে গেছে। শিক্ষার্থীরা ভবন ধসে পড়ার আশংকায় এই গরমেও ফ্যান ব্যবহার করতে পারছে না। বর্ষা মৌসুমে সামান্য বৃষ্টি হলেই ছাদ চুইয়ে পানি পড়ে শ্রেণীকক্ষ। দরজা, জানালা ভাঙ্গা, স্যাঁতস্যাঁতে পরিবেশ, দেয়াল ও ছাদের আস্তর খসে পড়ছে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের গায়ে। আর বিকল্প কোনো ব্যবস্থা বা ভবন না থাকায় ঐ জরাজীর্ণ ভবনেই বাধ্য হয়েই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. মফিজ উদ্দিন জানান, বিদ্যালয়টি খুবই ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় আছে। ভয়ে ভয়ে ক্লাস করতে হয়। দিন দিন বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি হ্রাস পাচ্ছে। এদিকে কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা না থাকায় এ অবস্থায় শিক্ষার্থীদের নিয়ে বিকল্প উপায়ে শিক্ষা কার্যক্রম চালাবো তাও পারছি না।প্রধান শিক্ষক আরো বলেন, দ্রুত ভবনটি পরিত্যক্ত ঘোষণা করে নতুন ভবন নির্মাণের ব্যবস্থা করা হোক। আর যে পর্যন্ত নতুন ভবন না হবে সেপর্যন্ত বিকল্প কোনো ব্যবস্থা করে শ্রেণী পাঠদান কার্যক্রম অব্যাহত রাখা হোক।উপজেলা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা আসাদুজ্জামান চৌধুরী জানান, উপজেলার ঝুঁকিপূর্ণ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তালিকায় শীর্ষে এ বিদ্যালয়ের নাম পাঠানো হয়েছে। বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা করে দ্রুত আপদকালীন ব্যবস্থাগ্রহণ করা হবে।উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ ফয়েজুল ইসলাম জানান, ১১০ নং ঘুনী গজমতি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের জরাজীর্ণ ভবনের বিষয়টি আমি জেনেছি। খুব দ্রুতই নতুন ভবন নির্মাণের টেন্ডার আহ্বান করা হবে। আর যে পর্যন্ত নতুন ভবন নির্মিত না হবে বিকল্প ব্যবস্থা হিসেবে সেখানে একটি টিনের ঘর তুলে বিদ্যালয়ের পাঠদান অব্যাহত রাখার ব্যবস্থা করা হবে।

About admin

Check Also

মঠবাড়িয়া পৌর শহরের ১৬০০ মিটার সড়কের সংস্কার কাজ শীঘ্রই শুরু

মাহামুদুল হাসান (হিমু) মঠবাড়িয়া উপজেলা প্রতিনিধিঃ পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলার প্রধান বেহাল সড়কটি অবশেষে সংস্কার হচ্ছে। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *